সমুদ্রের রাজা একুয়াম্যান

একুয়াম্যান বর্তমান বিশ্বে আলোচিত সুপারহিরোদের মধ্যে একজন। একুয়াম্যান ডিসি কমিকস এর একজন জনপ্রিয় কাল্পনিক সুপার হিরো।একুয়াম্যান এর উপর ভিত্তি করে অনেকগুলো এনিমেশন মুভি থাকলেও একুয়াম্যান মুলত ডিসি কমিকসের সাড়া জাগানো মুভি ব্যাটম্যান vs সুপারম্যানতে (২০১৬) আসার পর থেকে পুরো বিশ্বে তাকে নিয়ে আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়।তারপর জাস্টিস লিগ(২০১৭) তে একুয়াম্যানের অভিনয় ও একশ্যান দৃশ্য পুরো বিশ্বে একুয়াম্যানকে জনপ্রিয় সুপারহিরোর তালিকায় নিয়ে আসে।

 

লেখক  মোর্ট ওয়েইসিঙ্গার ও পল নরিস  ১৯৪১ সালের নভেম্বর মাসে More Fun Comics #73 নামের একটি ভলিউমে প্রথম একুয়াম্যান চরিত্রটির অভিষেক ঘটান। একুয়াম্যানের জীবনকালকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে।

১:সিলভার এইজ

২:গোল্ডেন এইজ

সিলভার এইজ সময় কাল মুলত পঞ্চাশ থেকে ষাট দশকের সমকালকে বলা হয়।তখন একুয়াম্যানকে ডিসির কমিকসে সহযোগী চরিত্র হিসেবে দেখা যায়।পরে নিজস্ব শিরোনামে বেশ কিছু গল্পে একুয়াম্যানকে দেখা যায়। বর্তমান বা আধুনিক যুগকে বলা হয় একুয়াম্যান চরিত্রের গোল্ডেন এইজ।এই সময় একুয়াম্যান চরিত্রটি জোরালোভাবে বিশ্বে প্রকাশ পায় বলে একে স্বর্ণযুগ  বলা হয়।এই সময়ে একুয়াম্যানকে সমুদ্রতলবর্তী আটলান্টিস এর রাজা হিসেবে দেখা যায়। একুয়াম্যান সমুদ্রতলবর্তী সমস্যা সমাধান ও স্থলে তার বন্ধু সুপারহিরোদের সাথে একত্র হয়ে স্থলের সমস্যা সমাধান করে । এবার আসুন একুয়াম্যান চরিত্রের উৎস  সমন্ধে জানা যাকঃ একুয়াম্যানের পিতা টম কারী  ছিলেন একজন লাইট হাউজ গার্ড।একরাতে প্রচন্ড সামুদ্রিক ঝড়ের পর তিনি বিধ্বস্ত অবস্থায় আটলান্টা নামের একজন রহস্যময়ী নারীকে উদ্বার করেন।তারপর তার সাথে টম কারীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ব হন।তারপর একুয়াম্যানের  জন্ম হয়।মাত্র ২বছর বয়সে একদিন একুয়াম্যান পানিতে পরে যান এবং সাতার কাটা শুরু করেন তা দেখে টম কারী অবাক হন।ছেলের এমন দক্ষতা দেখে তিনি প্রশিক্ষন করার জন্য একটি একুরিয়াম তৈরী করে দেন কিন্তু শিশু একুয়াম্যানের এতে মন বসে না। কিছুদিন পর শিশু একুয়াম্যান আবার ঝাপ দেন সমুদ্রে। অনেক খোজাখুজির পর বাবা টম কারী ছেলেকে আবিষ্কার করেন পানির নিছে।তিনি কচ্ছপ এর সাথে বসে খেলা করছেন।আবাক করার বিষয় হচ্ছে তার শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে কোন প্রকার সমস্যা হচ্ছেনা।এরপর আস্তে আস্তে একুয়াম্যান বড় হন এবং আবিষ্কার করেন যে তিনি সমুদ্রের প্রাণিদের কথা বুঝতে পারেন এবং তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন।কিন্তু তিনি বুঝতেননা যে তার এই ক্ষমতা আসলো কোথা থেকে যা নিয়ে তিনি খুবই উদ্বিগ্ন ছিলেন।তার উদ্বিগ্নের অবসান ঘটান তার মা আটলান্টা। তিনি মারা যাবার সময় বাবা ও ছেলে দুজনকেই তার পরিচয় জানিয়ে যান। তিনি হলেন সমুদ্র তলবর্তী আটলান্টিস সাম্রাজ্যের রাজকুমারী এবং একুয়াম্যান অই সাম্রাজের একমাত্র উত্তরাধিকারী।একুয়াম্যানের মা মারা যাবার পর বাবা টম কারী  ছেলেকে প্রশিক্ষন দিয়ে দক্ষ করে গড়ে তুলেন।তারপর একুয়াম্যান আটলান্টিস সাম্রাজ্যে গিয়ে নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা দূর করে তিনি আটলান্টিস ও সাত সমুদ্রের একমাত্র রাজা হিসেবে অধিষ্ঠিত হন। তারপর থেকে একুয়াম্যানকে সমুদ্রে কিংবা মাটিতে মানবতার কল্যাণে শত্রুদের বিরুদ্বে ত্রিশুল হাতে নিয়ে প্রতিহত করতে দেখা যায়। একুয়াম্যানের অভিনিত জনপ্রিয় কিছু এনিমেশন মুভির লিস্টঃ

একুয়াম্যান সহ সম্পূর্ণ জাস্টিস লিগ ফিগার সেটটি কিনতে ছবিতে ক্লিক করুন

১ঃজাস্টিস লিগঃ দ্যা নিউ ফ্রন্টাইয়ার Justice League: The New Frontier (2008)

২ঃ জাস্টিস লিগঃ ক্রাইসিস অন টু আর্থ Justice League: Crisis on Two Earths (2010)

৩ঃ জাস্টিস লিগঃ থ্রোন অব আটলান্টিস Justice League: Throne of Atlantis (2015)

৪ঃ জাস্টিস লিগঃ গড’স এন্ড মন্সটার’স Justice League: Gods and Monsters (2015)

৫ঃ জাস্টিস লিগঃ ডুম Justice League: Doom (2012)

৬ঃ জাস্টিস লিগঃ ওয়ার Justice League: War (2014)

একুয়াম্যান সুপারহিরোর ভক্তদের অধীরআগ্রহের অবসান ঘটিয়ে খুব শীগ্রই বক্স অফিস কাপাতে আসছে একুয়াম্যান ২০১৮ যাতে মুল চরিত্রে দেখা যাবে একুয়াম্যানকে।এই ছবিতে একুয়াম্যান হিসেবে অভিনয় করবেন গেম অব  থ্রন্স  এর জনপ্রিয় চরিত্র খাল দ্রোগো ও কনান দ্যা বারবারিয়ান এর Conan খ্যাত জ্যাসন মোমোয়াকে। আজকে এই পর্যন্তই। ভবিষ্যতে অন্য কোন জনপ্রিয় সুপারহিরোর কাহিনি নিয়ে হাজির হবো আপনাদের সামনে। এরকম আরো সুপারহিরোদের কাহিনি জানতে চোখ রাখুন minionbd এর ব্লগ পোস্টে।আর একুয়াম্যানের ইতিহাস জেনে কেমন লাগলো কমেন্ট এ জানাতে ভুলবেননা। ভালো থাকুন।

 

লেখকঃ মোঃ আলাউদ্দিন 

 

Share:

Leave a Comment

Your email address will not be published.

0

TOP

Call

X